1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
শুক্রবার, ১২ অগাস্ট ২০২২, ০৪:০৯ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪

তাপস হত্যা: মেয়র জুয়েল সহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

  • আপডেট সময় রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৮৭ বার

এম.জাফরান হারুন, নিজস্ব প্রতিনিধি, পটুয়াখালী:: পটুয়াখালীর বাউফলের সেই আলোচিত যুবলীগ নেতা তাপস কুমার দাস হত্যার ঘটনায় বাউফলের পৌর মেয়র জিয়াউল হক জুয়েলসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর ) পটুয়াখালীর অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আল আমিন এ আদেশ দেন। এরআগে পিবিআই (পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন) কর্তৃক আদালতে দাখিলকৃত তদন্ত প্রতিবেদন না মঞ্জুর হয়। মামলায় অনুপস্থিত অন্যান্যদের বিরুদ্ধে সমন জারি করা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মামলার রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী (এপিপি) অ্যাডভোকেট মো. রিপন খাঁন জানান, যুবলীগ কর্মী তাপস কুমার দাস (২৯) হত্যা মামলার প্রধান আসামি বাউফল পৌরসভার মেয়র জিয়াউল হক জুয়েলসহ ১৬ জন আসামিকে অব্যাহতি দিয়ে পিবিআই আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন।

রোববার বাদি পক্ষ ওই প্রতিবেদনের উপর অনাস্থা আবেদন করলে আদালত পিবিআই’র প্রতিবেদন না মঞ্জুর করে মূল এজাহারে বর্ণিত ধারায় মামলা আমলে নেন। এসময় অনুপস্থিত প্রধান আসামি বাউফল পৌরসভার মেয়র জিয়াউল হক জুয়েলের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারি করেন বিজ্ঞ আদালত।

এবিষয়ে মামলার বাদী ও নিহত তাপসের বড় ভাই পঙ্কজ দাস বলেন, পিবিআইর তদন্ত চলাকালীন তদন্ত কর্মকর্তা আবদুল মতিনের কর্মকান্ড উদ্দেশ্য মুলক ও সন্দেহজনক হওয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে আদালতে আবেদন করেছি। কালো টাকার বিনিময়ে তদন্ত কর্মকর্তা মতিন প্রধান আসামী মেয়র জুয়েলসহ ১৬জন আসামীকে অব্যাহতি দেয়। আদালতে তদন্ত প্রতিবেদনের উপর অনাস্থার আবেদন করলে মহামাণ্য আদালত পিবিআইর তদন্ত প্রতিবেদন না মঞ্জুর করে এবং আমার এজাহার আমলে নেয়। একই সাথে অনুপস্থিত থাকায় মেয়রসহ ১৪ জন আসামীর উপর গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

উল্লেখ্য, গত বছর ২৪ মে থানার সামনে একটি তোরণ নির্মাণকে কেন্দ্র করে দ্বন্দ্বের জেরে পৌর মেয়র অনুসারীর ছুড়িকাঘাতে নিহত হয় কালাইয়া ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা তাপস কুমার দাস (২৯)। এঘটনায় নিহত তাপসের বড় ভাই পঙ্কজ দাস বাউফল পৌর মেয়র জিয়াউল হক জুয়েলকে প্রধান আসামীকে ৩৫ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। চলতি বছরের ২৯ জুলাই মামলার প্রধান আসামী মেয়র জুয়েল, ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসেনসহ ১৬ জন আসামীর নাম উল্লেখ করে অব্যাহতি চেয়ে পটুয়াখালী চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন পিবিআইর পরিদর্শক আবদুল মতিন খাঁন।######
[২৬|০৯|২০২১]

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর
© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas
x