1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
মঙ্গলবার, ০৯ অগাস্ট ২০২২, ০৭:৫৬ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪

কুয়াকাটায় পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে হামলা আহত-২

  • আপডেট সময় শনিবার, ১০ এপ্রিল, ২০২১
  • ২১৪ বার


কুয়াকাটা সংবাদদাত।।
কুয়াকাটার আলীপুর পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী হামলায় মনির সহ
২জন আহত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে মৎস্য
বন্দর আলীপুরের আড়ৎদার ও ইউ,পি সদস্য আবুল কাজীর গদিতে।আহতরা হচ্ছে মনির খান (৩২) ও তার বাবা আবু হানিফ খান (৫২)। এদরে মধ্যে মনির খান এর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে কুয়াকাটার ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে
প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা দিয়ে বরিশাল শেবাচিমে প্রেরণ করা হয়েছে। এঘটনায় থানায় মামলার প্রস্ততি চলছে।প্রত্যক্ষদর্শী ও আহত সূত্রে জানাগেছে বিগত ৪/৫মাস পূর্বে আলীপুর নিবাসী
আবু হানিফ খান ইট ক্রয়ের জন্য মেসার্স মহিপুর ব্রিকস (এমএমবি) এর মালিক পক্ষ রিয়াজ মোর্শেদ ও মিজানুর রহমান মিরাজ এর মাধ্যমে প্রতি হাজার ইট সাত হাজার দুইশত টাকা দরে ২৫ হাজার ইটের টাকা প্রদান করেন। সেমোতাবেক কয়েকদিন আগে রিয়াজ মোর্শেদ ও মিরাজ আট হাজার ইট দিয়ে বাকী ইট দেয়নী। ফলে এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। যেকারণে
বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়ভাবে শুক্রবার সন্ধ্যায় আবুল হোসেন কাজীর আড়দে বসে সমাধানের সময় নির্ধারন করা হয়। পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী বিষয়টি নিয়ে পক্ষদ্বয় বসার পূর্বেই রিয়াজ
মোর্শেদ ও তার সঙ্গে থাকা শাহিন, গফ্ফার, নাসিরসহ কতিপয় লোক অতর্কিত হামলা চালিয়ে মনির খান ও হানিফ খানকে রক্তাক্ত জখম করেন। পরে স্থানীযরা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনে আহতদেরকে উদ্ধার করে।এ ব্যাপারে মহিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মনিরুজ্জামান বলেন, বিষয়টি জেনেছি তবে এখনও কোন অভিযোগ পাইনী, অভিযোগ পেলে আইনী ব্যবস্থা
নিব। ###
কুয়াকাটা সংবাদদাত।
তাং ১০-০৪-২১ইং

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর
© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas
x