1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০১:২১ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪

কুয়াকাটায় সংবাদ কর্মীকে মারধরের ঘটনাছিলো অনাকাঙ্খিত,উভয় পক্ষই সৌহার্দপূর্ন পরিবেশে বিষয়টি মিমাংসা।

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৬ এপ্রিল, ২০২১
  • ২৩৭ বার

বিশেষ প্রতিনিধি।।

কুয়াকাটায় সংবাদ কর্মীকে মারধরের ঘটনা ছিলো অনাকাঙ্খিত। এ জন্য অনুতপ্ত বলে জানালেন কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদুল হক। সোমবার গভীর রাতে কুয়াকাটার চৌ-রাস্তা পুলিশ বক্সে শালিস বৈঠকে ঘটনা মিমাংসার পর তিনি অনুতপ্ত বলে জানান।

এ সময় বৈঠকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মো: হুমায়ুন কবির. কলাপাড়ার ইউএনও আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদুল হক. কলাপাড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আহম্মেদ আলী, কুয়াকাটা পৌর মেয়র মো: আনোয়ার হাওলাদারসহ স্থানীয় গন্যমান্যরা

এ দিকে ইউএনওর গাড়ি চালক থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেছেন। এতে করে স্থাণীয় মনে ভড় করছে অজানা আতংক। তাদের অভিযোগ শালিস বৈঠকে বিষয়টি মিমাংাসার পর থানায় কিভাবে এ ডায়েরী হলো। এতে স্থানীয়দের মধ্যে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা আর কানাঘুষা।

সোমবার রাত পৌনে ৮টার দিকে কুয়াকাটা জিরো পয়েন্টের পুলিশ বক্সের সামনে মাস্ক না পড়ার অপরাধে স্থানীয় সাংবাদিক ইলিয়াসকে বেধরক পেটায় ট্যুরিষ্ট পুলিশ। ইলিয়াস সৈকতের ফটোগ্রাফার্স এসোসিয়েশন সাধারন সম্পাদক এবং দৈনিক আজকের তালাশের কুয়াকাটা প্রতিনিধি।
প্রত্যক্ষ্যদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়. এ ঘটনার পর চরম ক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠে শত জনতা। ইএনওর বিচার দাবী করে বিক্ষোভ মিছিল শেষে ইউএনওকে অবরুদ্ধ করে রাখেন তারা । প্রায় আধা ঘন্টা পর পুলিশ এসে উদ্ধার করেন ইউএনওকে। তারা আরো জানান. এ সময় পুলিশ ও স্থাণীয়দের মধ্যে চলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া। রাত ৯টার দিকে তা নিয়ন্ত্রনে নেন পুলিশ।
অপর দিকে নির্যাতিত সাংবাদিক ইলিয়াস শেখ অভিযোগ করে বলেন প্রশাসন তাকে নানা ভয়ভীতি দেখিয়ে বসতে বাধ্য করেন শালিস বৈঠকে। এ সময় মিমাংসার কথা বলে রাখা হয় মুচলেকা। পরে জানতে পারেন, তার বিরুদ্ধে মহিপুর থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করা হয়েছে। এতে ইলিয়াসসহ তার পরিবার পুলিশি হয়রানীর ভীতির মধ্যে রয়েছেন।

কুয়াকাটা পৌর মেয়র আনোয়ার হাওলাদার বলেন. মারধরের ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রশসন ও স্থানীয়দের মাঝে সৃষ্ঠ ঘটনার মিমাংসা হয়েছে। এনিয়ে আর কোন ঝামেলার সূযোগ নেই।

কলাপাড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আহম্মেদ আলী জানান. ঘটনার পর সাংবাদিক ইলিয়াস শেখ ও ইউএনও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের সম্মুখে এ ঘটনার বর্ননা দিয়েছেন। পরে জেলা প্রশাসন ও স্থাণীয় জন প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে উভয় পক্ষই সৌহার্দপূর্ন পরিবেশে বিষয়টি মিমাংসা হয়েছে। ###

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর
© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas