1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ১১:২৩ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪

কলাপাড়ার ডালবুগঞ্জ ইউনিয়ানের ৩ টি ওয়ার্ডে ১৩ কিঃ মিঃ রাস্তা পাঁকা হলে হাসি ফুটবে এলাকাবাসীর।

  • আপডেট সময় শনিবার, ৮ আগস্ট, ২০২০
  • ৩৯১ বার

বিষেশ প্রতিনিধি।

কলাপাড়ার সুরডুগী বাদঘাঁট থেকে কাটাভারানী ব্রিজ (৭ কিঃ মিঃ) বরকুতিয়া থেকে চাপলী বাজার ৩ কিঃ মিঃ, হাজিকান্দা থেকে বরকুতিয়া ১ কিঃ মিঃ ও সুরডুগী বাদঘাঁট থেকে খেয়াঘাট ২ কিঃ মিঃ, এই ১৩ কিঃ মিঃ রাস্তা পাঁকা হলেই অনেক বছরের ক্লান্তি দুর হবে এই জনপথের মানুষের এমটাই দাবী এলাকাবাসীর।

উপজেলার ডালবুগঞ্জ এর ৩ টি ওয়ার্ড, খাপড়াভাঙ্গা বরকতিয়া ও মনসাতলী এই তিনটি গ্রামের যাতায়াত বিচ্ছিন্ন। এক ওয়ার্ডে এর সাথে অন্য ওয়ার্ডে কোন যোগাযোগ নেই । এর একমাত্র কারণ হলো রাস্তার সমস্যা এই তিনটি ওয়ার্ডে কোন উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। যুগ যুগ ধরে ভোগান্তি এই জনপথের মানুষের। মাএ ১৩ কিলোমিটার রাস্তা পাঁকা হলেই সমস্যার সমাধান হবে এলাকাবাসীর।

খেয়াঘাট মার্কেট থেকে কাটাভারানী সহ প্রায় ১৩ কিলোমিটার রাস্তা বেহাল দশার কারণে জনদুর্ভোগ এখন চরমে।
প্রায় যুগ যুগ ধরে এ রাস্তাগুলো সংস্কার না হওয়ায় রাস্তায় পিচ, কাঁদা মাটি, উঠে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। যানবাহন চলাচল করায় রাস্তায় বিভিন্ন স্থান থেকে গর্তের সৃস্টি হয়েছে বৃষ্টি হলেই ওইসব গর্তে পানি আটকে থাকে বেশ কয়েক দিন এতে যানবাহন দুর্ঘটনা কবলিত হয়। বিশেষ করে স্কুল,কলেজ ও মাদ্রাসা পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা প্রতিদিন যাতায়াত করে এ রাস্তা দিয়ে।
অনেক সময় পথচারী ও শিক্ষার্থীরা দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে। এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন, মোটরসাইকেল,রিকসা, ইজিবাইক,মিশুক ও ভ্যান চলাচল একেবারে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।

ডালবুগন্জ ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের-সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান আবদুস সালাম শিকদার জানান, খেয়াঘাট হয়ে বরকুতিয়া বাজারের এ রাস্তাটি অত্যন্ত ব্যস্ততম রাস্তা। প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ এ রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করছে। এছাড়া বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, শ্রমজীবী ও পেশাজীবী মানুষ এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করে। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে রাস্তাটি সংস্কার না করায় গুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে বেহাল দশায় যানবাহন ও জনসাধারণ চলাচলে অনুপযোগী।
শুষ্ক মৌসুমে ধুলাবালি আর বর্ষা মৌসুমে কাঁদা পানিতে নোংরা হচ্ছে পথচারিদের পোশাক পরিচ্ছেদ। সুস্থ মানুষেরা হয়ে যায় অসুস্থ আর অসুস্থদের অবস্থা তো বলাই বাহুল্য। রাস্তাটি সংস্কার করা একান্ত জরুরী। খেয়াঘাট ও বরকুতিয়ার মাঝে রয়েছে বড় একটা বাজার।

সুরডুগীর ব্যবসায়ীরা জানান, এ রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় সাধারণ পথচারি, স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার ছাত্র-ছাত্রী, কৃষিজীবী মানুষের উৎপাদিত শাক-সবজি বহনকারী যানবাহন প্রতিনিয়ত চলাচল করে।
বিশেষ করে এ রাস্তা দিয়ে স্কুল ও কলেজগামী কোমলমতি শিক্ষার্থীরা চলাচল করতে দুর্ভোগ পোহাতে হয়। মটর বাইক চালকেরা জানান, রাস্তায় ছোট-বড় গর্তের জন্য যাত্রীরা আরামে গাড়িতে বসতে পারে না। তারপরও ঝুঁকি নিয়েই গাড়ি চালাতে হয়।
একে কাচাঁ রাস্তা এর মাঝে অবৈধ ট্রলি চলাচলে কাঁদা মাটিতে রাস্তায় একবারে হাটা মুশকিল হয়ে পড়েছে।

ডালবুগন্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবদুস সালাম শিকদার জানান, রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারের অভাবে চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। জনগণ যাতায়াত করছে ঝুঁকি নিয়ে। রাস্তাটি সংস্কারের জন্য একাধিকভাবে জানানো হয়েছে অজানা কারনে রাস্তাটির নতুন স্কিপ আসছে না।

কলাপাড়া উপজেলা প্রকৌশলী(এলজিইডি) অফিসার জানান, স্থানীয় চেয়ারম্যান এলাকার জনগণের প্রতিনিধি। আবেদন পেলে রাস্তাটি সংস্কারের বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর

পটুয়াখালী অগ্নিকাণ্ডে চারটি দোকান পুড়ে ছাই। পটুয়াখালী প্রতিনিধি।। পটুয়াখালী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সহকারী পরিচালক মো. জাকির হোসেন জানান, সোমবার রাত ৩টার পরে হঠাৎ করে শহরের কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ এলাকা থেকে অগ্নিকাণ্ডের খবর আসে। খবর পেয়ে দ্রুত ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু ততক্ষণে খাদিজার চায়ের দোকান, হানিফ মিয়ার গ্যাস সিলিন্ডারের দোকান, মালেক মিয়ার মুদি দোকান ও জাহাঙ্গীর নামের একজনের দোকান পুড়ে যায়। অগ্নি কান্ডে প্রায় ২০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা। তবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানাতে পারেনি পটুয়াখালী ফায়ার সার্ভিস।

© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas