1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ১০:৪৩ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪
শিরোনামঃ-
অন্যের স্ত্রী নগদ টাকা ও স্বর্নালঙ্কার চুরি; কলাপাড়ায় কথিত সাংবাদিকের নামে সমন জারি কলাপাড়া আন্ধার মানিক নদীর মোহনায় জলদস্যু জোংলা শাহালম বাহিনী কর্তৃক ট্রলার ডাকাতি, অপহরণ-১। মহিপুরে আইনকে পুঁজি করে সাধারন মানুষকে ফাঁসানোর অভিযোগ। বিএমএসএফের কেন্দ্রীয় গবেষণা সম্পাদক বেলালকে রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা দেয়া হচ্ছে। গলাচিপায় শিক্ষক-ছাত্রীর আপত্তিকর কথাবার্তা ফাঁস সমালোচনার ঝড়। রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা সুবেদার আফতাব উদ্দীন কেন্দুয়ায় প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ে- অসীম অপু দম্পত্তি’র রোগমুক্তি কামনায় দোয়া প্রার্থনা সরকারি খাল সেচ দিয়ে চেয়ারম্যানের মাছ শিকার, মিষ্টি পানি সংকটে কৃষক কলাপাড়ায় উপজেলা উন্নয়ন ও সমন্বয়সভা অনুষ্ঠিত \ কেন্দুয়ায় অসীম অপু দম্পতি’র রোগমুক্তি কামনায়-মহিলা কলেজে দোয়া মাহফিল পটুয়াখালীতে জেলা কৃষক লীগের দায়িত্ব পেলেন গাজী আলী হোসেন ও সরদার সোহরাব! অবিলম্বে জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহের রাষ্ট্রিয় স্বীকৃতি দিতে হবে: বিএমএসএফ

চিতলমারী উপজেলায় ভিক্ষা করেই চলছে ৮০ বছরের অসুস্থ বৃদ্ধাসহ ৩ জনের জীবন সংগ্রাম নেই বাসস্থান।

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১০৮ বার

রণিকা বসু(মাধুরী)
বিশেষ প্রতিনিধি:

বাগেরহাট জেলার চিতলমারী উপজেলার ৭নং সন্তোষপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের দরিউমাজুড়ী গ্রামের বাসিন্দা অমুল্য বৈরাগীর বয়স ৮০/৮৫ হবে৷ তার স্ত্রী ও একজন পিতা-মাতা হারা এতিম নাতী নিয়ে খুবই কষ্টের সাথে জীবন যাপন করতেছেন৷নেই একটা ঘর,এই শীতে নেই শীতের পোশাক,নেই লেপ বা কম্বল,নেই আয় করা মানুষ,যেদিকে তাকাই শুধু নেই আর নেই?নিজে শারীরিক অসুস্থ৷ স্ত্রী ও অসুস্থ তবু মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরে ভিক্ষা করে চলছে তাদের তিন জনের জীবন৷অমুল্য বৈরাগী বয়সের ভারে নুয়ে পরেছে শরীর তার মধ্যে অসুস্থ৷ স্ত্রী রেখা বৈরাগীর বয়স ৭০-৭২ বছর তিনিও অসুস্থ তবু কিছু করার নেই পেট যে কিছু মানে না৷অসুস্থ শরীর নিয়ে সারাদিন মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরে যা পান তাই দিয়ে চালাতে হয় স্বামী ও একজন ১০ বছরের নাতীকে৷অমুল্য বৈরাগীর একমাত্র মেয়ে ছিলেন লিপি রানী সরকার তাকে বিয়ে দিয়েছিলেন৷বিয়ের পর এক ছেলে ও এক মেয়ে জন্ম দিয়ে সংসারে মনমালিংন্য হয়ে বিষ খেয়ে আত্নহত্যা করেন। মেয়ে লিপি রেখে যান দুজন অবুঝ শিশু সন্তান৷লক্ষী ও তুফান নামে দুই ছেলে মেয়েকে৷মেয়ে মারা যাবার পর জামাই তাদের যেটুকু জমি ছিলো বিক্রি করে টাকা নিয়ে পারি জমান ভারতে৷ তারপর থেকে নাতী নাতনীর দায়িত্ব এসে পরে অসহায় অমুল্য বৈরাগীর উপর৷নাতনীকে অনেক কষ্টে বিয়ে দেন৷এখন নিজেও অসুস্থ স্ত্রী রেখা বৈরাগীও অসুস্থ তবু নেই থেমে থাকা৷আগে শাকপাতা বিক্রি করতেন রেখা বৈরাগী এখন অসুস্থতার কারণে তাও পারেন না৷তাই নিরুপায় হয়ে করেন ভিক্ষা৷অমূল্য বৈরাগী বলেন আমি চুরি করতে পারবো না তাই ভিক্ষা করে খাই৷প্রতিবেশির কাছে তার বিষয়ে জানতে চাইলে বাহির দশমহল বালিকা বিদ্যালয়ের শিক্ষক গৌরাঙ্গ হীরা বলেন আমিও অনেক চেষ্টা করেছি তাকে কিছু সাহায্য করার পারিনি। আমিও চাই এই অসহায় পরিবারটি সাহায্য পান৷বিশেষ করে তার একখানা ঘর নেই বৃষ্টি পরলে তাদের কষ্ট আরও বেড়ে যায়৷তিনি বলেন অসহায় পরিবারটি একটা ঘর পেলে কষ্টটা কিছুটা হলেও কমবে। এলাকাবাসি বলেন সমাজের বিত্তবান, জনপ্রতিনিধি ও উর্ধ্বতম কর্মকর্তাদের কাছে আমাদের বিনীত অনুরোধ এই অসহায় পরিবারটির প্রতি সদয় দৃষ্টি দিয়ে পরিবারটিকে সাহায্য করার জন্য।

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর
© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas