1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ১০:২৩ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪
শিরোনামঃ-
অন্যের স্ত্রী নগদ টাকা ও স্বর্নালঙ্কার চুরি; কলাপাড়ায় কথিত সাংবাদিকের নামে সমন জারি কলাপাড়া আন্ধার মানিক নদীর মোহনায় জলদস্যু জোংলা শাহালম বাহিনী কর্তৃক ট্রলার ডাকাতি, অপহরণ-১। যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপিত হয়েছে পবিত্র ঈদুল আযহা।। কুয়াকাটা পৌরসভায় ১৬ ’শ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের মাঝে চাল বিতরণ কুয়াকাটায় কন্যাদ্বায়গ্রস্ত পিতার পাশে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা সোহাগ।। বঙ্গবন্ধুর নামে ৮ টি গরু ২টি মহিষ কোরবানী দিবেন কুয়াকাটা পৌর মেয়র। পটুয়াখালীতে করোনায় আরও তিন জনের মৃত্যু।। কুয়াকাটায় ৩ হাজার পেলো প্রধানমন্ত্রীর খাদ্য সহায়তা। ২৪ ঘন্টায় করোনা আপডেট নওগাঁ জেলায় আরও ২ ব্যক্তির মৃত্যুঃ মোট মৃত্যু ১১১ জনঃ নতুন আক্রান্ত ৫৬ জন দশমিনায় তিন ইউপি সদস্যদের শপথ গ্রহন অনুষ্ঠিত

বেনাপোলে এক বিবাহ ব্যবসার পরিবার কর্তৃক মিথ্যা মামলার শিকার ১ যুবক।

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১৭২ বার

মোঃ নজরুল ইসলাম বিশেষ প্রতিনিধি।।
বেনাপোলের সাদিপুর গ্রামের আলী আহম্মদ নেদার পুত্র মো:মুরাদ হোসেন এ অভিযোগ করেন। তিনি বলেন বেনাপোল পোর্ট থানার পুলিশ মাদকের অভিজানে গিয়ে আসামী ধরে থানায় আনার পথে সানজিদা আক্তার শ্রাবণী নামে একটি মেয়ে নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে নানা প্রশ্নসহ ভিডিও ধারণ করতে থাকে, এ সময় পুলিশ তার পরিচয় পত্র দেখতে চাইলে সে বলে এখনো কার্ড হয়নি আমি ট্রানিং নিচ্ছি। এসময় সেখানে উপস্থিত সাংবাদিক মুরাদ তাকে বকা দিয়ে সেখান থেকে চলে যেতে বললে আচমকা মেয়েটি মুরাদের গালে একটা থাপ্পর মারে তখন মুরাদও তাকে মারতে উদ্দত হলে এস আই রোকনুজ্জামান তাদেরকে আলাদা করে দিয়ে আসামী নিয়ে থানায় চলে যান।
পরবর্তীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে মুরাদকে ফাসানোর এবং অর্থ আত্তসাতের জন্য এস পির কাছে ভূয়া ডাক্তারি রির্পোট নিয়ে গিয়ে নালিশ করে যে মুরাদ মেয়েটিকে মেরেছে এবং শ্লীলতা হানি করেছে কিন্তু থানায় তাদের মামলা নিচ্ছেনা। পরবর্তিতে থানায় তার নামে একটা জিডি হয়।
সানজিদা আক্তার শ্রাবণী বেনাপোলের সাদিপুর গ্রামের মৃত মজিবর রহমানের কন্যা। সে বেনাপোল ডিগ্রী কলেজের ইন্টার ২য় বর্ষের ছাত্রী। তার গ্রামবাসীর কাছে তার সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা বলেন, এই কলেজ ছাত্রীর আগে দুইবার বিয়ে হয়েছে দুইটাই আবার ডির্ভোস হয়েছে। পিন্টু, আসমান, রেজাউল, শানা, রেসমা সহ আরো অনেকে বলেন শ্রাবণীর মা টাকার লোভে তার মেয়ের বিবাহ নাটক করে এবং সাধারণ মানুষকে ঠকায়। গ্রামবাসী সহ তাদের আপন আত্নীয়ও তাদের কাজে অসন্তুষ্ট।

এ বিষয়ে সানজিদা আক্তার শ্রাবণী সাংবাদিকদের বলেন, হ্যা এটা সত্য যে আমি প্রথমে মুরাদের গালে থাপ্পড় মারি এবং পরে সে আমাকে অনেক মারে এবং আমি অঙ্গান হয়ে মাটিতে পরে যায়।

এ বিষয়ে বেনাপোল পোর্ট থানার এস আই রোকনুজ্জামানকে জিঙ্গাস করা হয় মুরাদ কি মেয়েটিকে মারা কিংবা কোন শ্লীলতা হানি করেছিল, তখন তিনি বলেন না মুরাদ এমন কোন কাজ করেনি বরং মেয়েটি আমাদের উপস্থিতে ছেলেটির গালে চর মারে। তিনি আরোও বলেন মেয়েটি আমাদের কাছে নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়েছিল কিন্তু পরে দেখি সেটা মিথ্যা। ছোট মেয়ে ভেবে তাকে সর্তক করে ছেড়ে দেয়।
এ বিষয়ে মুরাদের পরিবার বলে, তারা আজ নারী বলে ইচ্ছাকৃত জামা ছিঁড়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে আমার ছেলেকে ফাঁসাচ্ছে এবং সামাজিক ভাবে আমাদের হেয় করছে, বড় অংকের অর্থ আত্তসাতের উদ্দেশে।কিছু সাংবাদিক ঘোলা পানিতে মাছ ধরার উদ্দেশে বিষয়টা আরো বড় করছে। আমি এর সুষ্ঠ তদন্ত এবং সঠিক বিচারের জোরালো সচেতন মহলের।

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর
© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas