1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:৪৯ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪

রানীশংকৈলে পাকিস্তানি হানাদার মুক্ত দিবস পালিত।

  • আপডেট সময় রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২২
  • ৫৭ বার
Exif_JPEG_420

রানীশংকৈল (ঠাকুরগাঁও) প্রতিনিধিঃ

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে ৩ ডিসেম্বর ২০২২ইং রোজ শনিবার পাক হানাদার মুক্ত দিবস পালন করা হয়। উপজেলা হানাদার মুক্ত দিবস উদযাপন কমিটি ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদের অংশ গ্রহণে দিবসটি পালন উপলক্ষে ঐদিন বিকাল ৫টায় উপজেলা আ.লীগ আফিস থেকে একটি আনন্দ শোভাযাত্রা বের করে পৌরশহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করা হয়।পরে সন্ধ্যায় বন্দর চৌররাস্তা মোড়ে উপজেলা হানাদার মুক্ত দিবস উদযাপন কমিটি সভাপতি ও আ.লীগ সভাপতি সইদুল হকের সভাপতিত্বে এক পথসভা অনুষ্ঠিত হয়৷ সভায় বক্তব্য রাখেন,জেলা আ.লীগ সহ-সভাপতি ও সাবেক এমপি সেলিনা জাহান লিটা,সাবেক এমপি অধ্যাপক ইয়াসিন আলী,উপজেলা আ.লীগ সম্পাদক তাজউদ্দিন আহম্মেদ,পৌর-মেয়র ও উপঃ আ.লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান,উপজেলা হানাদার মুক্ত দিবস উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ তাজুল ইসলাম,আ”লীগ যুগ্ন সম্পাদক গোলাম সারওয়ার বিপ্লব ও রেজাউল করিম, সহকারী অধ্যাপক প্রশান্ত বসাক,ভাইস চেয়ারম্যান শেফালি বেগম,পৌর আ.লীগ সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মহাদেব বসাক,
উপঃ কৃষকলীগ সাধারণ সম্পাদক দিগেন্দ্রনাথ রায়,উপঃ আ.লীগ সদস্য তসদিকা হক,উপঃ মহিলা আ.লীগ সম্পাদিকা ফরিদা ইয়াসমিন,বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান,কাউন্সিলর হালিমা আক্তার ডলি প্রমুখ। এছাড়াও আ.লীগ ও তার অঙ্গসংগঠনের বিভিন্ন নেতাকর্মীরা , প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা অনেকেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন৷ পাকিস্তানি হানাদার মুক্ত দিবস উপলক্ষে রাণীশংকৈলের বীর মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তানেরা সজ্জিত পোষাকে হাতে হাতে জাতীয় পতাকা, ব্যান্ডপার্টির দেশাত্মবোধক গানের সুরে আনন্দ শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন পৌর আ.লীগ সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম।প্রসঙ্গত: ঠাকুরগাঁও জেলার রাণীশংকৈল উপজেলা পাক হানাদার বাহিনীর হাত থেকে ৩ডিসেম্বর’৭১সালে মুক্ত হয়। পাক স্বৈরশ্বাসক গোষ্ঠির দাবানল থেকে মুক্তি পেতে বাঙালী ছাত্র-জনতা দাবি আদায়ের আন্দোলনে ঝাপিয়ে পড়ে।উপজেলার খুনিয়াদিঘি এক হৃদয় বিদারক নাম। স্বাধীনতা যুদ্ধে পাক বাহিনীর বর্বরতার স্বাক্ষর বহন করে আসছে এটি। লোমহর্ষক কাহিনীর মাইল ফলক হিসেবে ধরা হয় এ ‘খুনিয়াদিঘী’ নামটিকে।

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর
© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas