1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ১১:১৯ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪

শার্শায় সীমান্তে পুলিশ ও বিজিবির পোশাক পরে গুপ্ত বাহিনী স্বর্ণ, মাদক চোরাচালানি পণ্য আটক করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০
  • ২৩৯ বার

মোঃ নজরুল ইসলাম বিশেষ প্রতিনিধি

যশোরর শার্শা উপজেলায় নতুন এক বাহিনীর আবির্ভাব হয়েছে।গুপ্ত বাহিনী কখনো পুলিশ, কখনো বিজিবি, কখনো ডিবি পুলিশের পোশাক পরে অবৈধ চোরাচালানের মালামাল আটক করে নিজেরা ভোগ করছে এমন অভিযোগ উঠেছে।এই বাহিনীর সদস্য সংখ্যা প্রথমিক ভাবে জানা গেছে৮/১০ জন। গত ১বছরে স্বর্ণ, ফেন্সিডিল, মদ, ঝুট ইলিশ মাছ, সহ চোরাই পথে ভারতে থেকে আনা নেওয়া মালামাল লোকচক্ষুর আড়ালে রাতে দিনে মেরে নিচ্ছে। এ বাহিনীর সাবেক এক সদস্য নাম না প্রকাশ করার শর্তে তিনি জানান কিছু দিন আগে রুদ্রপুর বিলপাড়া মাঠ থেকে ৪০০ বোতল ফেন্সিডিল, ভবানীপুর ইছাপুর সাতাই আমলাই মাঠ থেকে ৬০০ ফেন্সিডিল এবং ৫০,১০০,২০০বোতল ফেন্সিডিল বহুবারই মেরে নিয়েছে, সনাতন কাঠি থেকে সেতাই এর মাঝ থেকে ৬লক্ষ৭০হাজার টাকার ঝুট র‍্যাব পরিচয়ে মেরেছে।শুধু তাই না বাহিনী যশোর কেশবপুর সড়কের রাজার হাঠ থেকে ৫ মাস পূর্বে পাঁচকোটি ৮০লক্ষ টাকার স্বর্ণ পুলিশ পরিচয়ে মেরেছে। সেই টাকা ভাগাভাগি নিয়ে মারামারি হয়,বলে সর্বাঙ্গ বিষয় একান্ত পরিচয় গোপন শর্তে এ পতিবেদকে জানায়। উল্লেখ্য সর্ব শেষ ২৯শে অক্টোবর সেতাই মাঝের পাড়ায় মনিরের বাড়ির পেছন থেকে রাত১টার সময় বিজিবি পরিচয়ে ৬০০ বোতল ফেন্সিডিল মেরে নেয় এই বাহিনী।এই মাদকের চালান গুপ্ত বাহিনীর এক সদস্যর আত্নীয়ের মাল হওয়ায় বাহিনীর সব সদস্য মিলে বৈঠকে বসে মাল ফেরত দিবে বলে নিশ্চিত করে।তাদের এ মাল বিজিবির আটকের পরিচয় ফাঁস হলে তারা পাশের বাড়ির এক যুবককে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গোপন আস্তানায় বেধড়ক মারপিট করে হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয় বলে অভিযোগও উঠে ছিলো। এবিষয়ে শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি বদরুল আলম জানান,আমাদের কাছে এমন কোন তথ্য বা অভিযোগ পাই নাই।যদি কেও এ সমস্থ কার্যক্রম করে থাকে তদন্ত করে আইনগত ব্যাবস্থা নেয়া হবে
মোবাইল ০১৭১২৯৪৭৮৭১

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর

পটুয়াখালী অগ্নিকাণ্ডে চারটি দোকান পুড়ে ছাই। পটুয়াখালী প্রতিনিধি।। পটুয়াখালী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সহকারী পরিচালক মো. জাকির হোসেন জানান, সোমবার রাত ৩টার পরে হঠাৎ করে শহরের কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ এলাকা থেকে অগ্নিকাণ্ডের খবর আসে। খবর পেয়ে দ্রুত ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু ততক্ষণে খাদিজার চায়ের দোকান, হানিফ মিয়ার গ্যাস সিলিন্ডারের দোকান, মালেক মিয়ার মুদি দোকান ও জাহাঙ্গীর নামের একজনের দোকান পুড়ে যায়। অগ্নি কান্ডে প্রায় ২০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা। তবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানাতে পারেনি পটুয়াখালী ফায়ার সার্ভিস।

© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas