1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ০৫:২২ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪
শিরোনামঃ-
অন্যের স্ত্রী নগদ টাকা ও স্বর্নালঙ্কার চুরি; কলাপাড়ায় কথিত সাংবাদিকের নামে সমন জারি কলাপাড়া আন্ধার মানিক নদীর মোহনায় জলদস্যু জোংলা শাহালম বাহিনী কর্তৃক ট্রলার ডাকাতি, অপহরণ-১। আশুলিয়ায় চাঞ্চল্যকর শাহিন কবির হত্যা মামলার আসামী চায় থানা ছাত্রলীগের নেতৃত্ব যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপিত হয়েছে পবিত্র ঈদুল আযহা।। কুয়াকাটা পৌরসভায় ১৬ ’শ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের মাঝে চাল বিতরণ কুয়াকাটায় কন্যাদ্বায়গ্রস্ত পিতার পাশে কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা সোহাগ।। বঙ্গবন্ধুর নামে ৮ টি গরু ২টি মহিষ কোরবানী দিবেন কুয়াকাটা পৌর মেয়র। পটুয়াখালীতে করোনায় আরও তিন জনের মৃত্যু।। কুয়াকাটায় ৩ হাজার পেলো প্রধানমন্ত্রীর খাদ্য সহায়তা। ২৪ ঘন্টায় করোনা আপডেট নওগাঁ জেলায় আরও ২ ব্যক্তির মৃত্যুঃ মোট মৃত্যু ১১১ জনঃ নতুন আক্রান্ত ৫৬ জন

আমতলী সরকারি কলেজে অতিরিক্ত ফি আদায়ের প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন।

  • আপডেট সময় সোমবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৯৩ বার

মোঃ জাহিদ, স্টাফ রিপোর্টারঃ

শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অ্যাসেসমেন্ট নামে টাকা আদায়ের প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে আমতলী সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীরা।

আজ সোমবার দুপুরে কলেজের প্রধান ফটকে সামনে ঘন্টা ব্যাপী মানববন্ধন ও বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন তারা। এতে তোপের মুখে পড়ে কলেজ অধ্যক্ষ মোঃ মজিবুর রহমান পরবর্তীতে তিনি পরীক্ষা স্থাগিত করেন।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীনা জানান, একাদ্বশ, দ্বাদশ ও স্নাতক শ্রেনীতে দুই হাজার সাত’শ শিক্ষার্থী রয়েছে। গত ১৫ অক্টোবর অ্যাসাইনমেন্টের নামে কলেজ অধ্যক্ষ পরীক্ষা শুরু করেন। ওই পরীক্ষা গত ২৮ অক্টোবর শেষ হয়। ওই সময় শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে এক হাজার দুই’শ ষাট টাকা আদায় করেন। অভিযোগ রয়েছে ওই সময়ে কলেজের অধিকাংশ শিক্ষার্থীরা টাকা দিতে অপরগতা প্রকাশ করলেও কলেজ অধ্যক্ষ তাদের অপরগতা আমলে নেয়নি। উল্টো পরীক্ষায় ফি না দিলে পরবর্তি শ্রেনীতে উত্তীর্ণের অনুমতি দিবে না বলে হুমকি দেয়। নিরুপায় হয়ে শিক্ষার্থীরা অধ্যক্ষের চাহিদা মত টাকা দিয়ে পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করেন। ওই পরীক্ষা শেষ হওয়ার এক মাসের মাথায় আবারো আগামী ২৯ নভেম্বর অ্যাসাইনমেন্ট পরীক্ষা প্রস্তুতি নেন। এই পরীক্ষায় ফি. বেতনসহ বিভিন্ন ফি বাবদ এক হাজার দুই’শ ষাট টাকা ধার্য্য করেন। পরিপত্রে উল্লেখ আছে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অ্যাসাইনমেন্টের নামে অর্থ আদায় করতে পারবে না। অর্থ আদায় করলে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের বিরুদ্ধে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে। কিন্তু মন্ত্রনালয়ের এ পরিপত্র আমতলী সরকারী কলেজের অধ্যক্ষের কাছে তেমন কিছুই না। তিনি উল্টো ওই পরিপত্রের বিরুদ্ধে ব্যঙ্গবিদ্রুপ করছেন। তিনি তার ইচ্ছা মাফিক আইন করে কলেজের শিক্ষার্থীর কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে। এ ঘটনা তদন্তপূর্বক দ্রুত কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানাচ্ছেন শিক্ষার্থীরা।

এ বিষয়ে আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আসাদুজ্জামানের বরাবরে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা লিখিত অভিযোগ করেন।

আমতলী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আসাদুজ্জামান বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। সাত কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত সাপেক্ষে প্রতিবেদন জমা দেওয়ার জন্য উপজেলা কৃষি অফিসার সিএম রেজাউল করিমকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন,তদন্ত প্রতিবেদন পেয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আমতলী সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ মজিবুর রহমান বলেন, পরীক্ষা আপাদত বন্ধ করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, পরীক্ষার ফি ও শিক্ষাথর্ীদের কাছ থেকে বেতন ছাড়া অন্য কোন অর্থ আদায় করা হচ্ছে না। যারা বেতন দেয়নি তাদের কাছ থেকে শুধু মাত্র বেতন নেয়া হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আদায় করা সমুদয় টাকা কলেজের ব্যাংক হিসেবে জমা হচ্ছে।

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর
© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas