1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:৪৮ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪

বাকেরগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত-১, বিক্ষুদ্ধ জনতার সড়ক অবরোধ।

  • আপডেট সময় বুধবার, ৫ জানুয়ারী, ২০২২
  • ২৮ বার

বিশেষ প্রতিনিধি।।

বরিশাল- পটুয়াখালী মহাসড়কে বাকেরগঞ্জ বাসস্ট্যান্ডে বাসের থাক্কায় আসলাম হাওলাদার (৪০) নামের এক পথচারী ঘটনাস্থলেই নিহত। নিহত আসলাম হাওলাদার পেশায় একজন পল্টি মুরগী ব্যবসায়ী। তিনি উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের বিরঙ্গল গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল মোতালেব হাওলাদারের পুত্র।

বুধবার (০৫-জানুয়ারি-২০২২ ইং) তারিখ আনুমানিক বিকেল ৪ টার সময় বরিশাল-টু-কুয়াকাটা মহাসড়কের বাকেরগন্ঞ্জ বাসস্ট্যান্ডে সড়ক দুর্ঘটনাটি ঘটে।দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলেই পথচারীর মৃত্যু হয়।

ঘটনা সুত্রে জানা যায়, ঢাকা থেকে কুয়াকাটাগামী মল্লিক এন্টারপ্রাইজ গাড়ি নাম্বার (ঢাকা মেট্রো ব-১৫-৪০৩৬) বুধবার বিকেল ৪টার সময় বাকেরগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড ব্রিজে উঠার আগেই পথচারী আসলামকে ধাক্কা দিলে বাসের চাকায় পৃষ্ঠ হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। এসময় বাস চালক বাস থেকে লাফ দিয়ে পালিয়ে যায় । এতে বাস গাড়িটি ব্রেক ফেল করে পুনরায় পিছনের দিকে এসে বাসস্ট্যান্ডের পাসে হাওলাদার ফিলিং স্টেশনে রাখা ৬টি সিএনজিকে ধাক্কা দেয় এবং সিএনজি গুলো দুমরে মুছরে যায়।

ঘটনার পরপর বিক্ষুদ্ধ জনতা টায়াল জ্বালিয়ে পথরোধ করে ঘন্টাব্যাপী বিক্ষোভ করে। এসময় বাসস্ট্যান্ড ব্রিজের দুই পাশে শতাধিক গাড়ি আটকা পরে। পরবর্তীতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাধবী রায় ও (ওসি) তদন্ত সত্যরঞ্জন খাসকেল ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর

পটুয়াখালী অগ্নিকাণ্ডে চারটি দোকান পুড়ে ছাই। পটুয়াখালী প্রতিনিধি।। পটুয়াখালী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সহকারী পরিচালক মো. জাকির হোসেন জানান, সোমবার রাত ৩টার পরে হঠাৎ করে শহরের কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠ এলাকা থেকে অগ্নিকাণ্ডের খবর আসে। খবর পেয়ে দ্রুত ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। দীর্ঘক্ষণের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। কিন্তু ততক্ষণে খাদিজার চায়ের দোকান, হানিফ মিয়ার গ্যাস সিলিন্ডারের দোকান, মালেক মিয়ার মুদি দোকান ও জাহাঙ্গীর নামের একজনের দোকান পুড়ে যায়। অগ্নি কান্ডে প্রায় ২০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা। তবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষয়ক্ষতির বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কিছু জানাতে পারেনি পটুয়াখালী ফায়ার সার্ভিস।

© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas