1. amaderkuakata.r@gmail.com : admin :
  2. rumikuakata@gmail.com : rumi :
শুক্রবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১০:২৫ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
সকল জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে।

সরকার চাইছে সংঘাতময় পরিস্থিতি : জামায়াত

  • আপডেট সময়: বুধবার, ২ আগস্ট, ২০২৩
  • ৫৩ বার দেখা হয়েছে:

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমির অধ্যাপক মুজিবুর রহমান বলেছেন, বর্তমান সরকার কাউকে শান্তিপূর্ণ সভা-সমাবেশ ও মিটিং-মিছিল করতে দিচ্ছে না। বিরোধী রাজনৈতিক দলের সভা-সমাবেশের দিন সরকারি দল পাল্টা কর্মসূচি ঘোষণা করে সংঘাতময় পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে।

তিনি বলেন, ‘সরকারের দায়িত্ব দেশে শান্তি-শৃঙ্খলা ও জনগণের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। সেই দায়িত্ব পালনের পরিবর্তে রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থের জন্য একটি নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি তৈরি করেছে সরকার।

বুধবার (২ আগস্ট) দুপুরে দেশে বিদ্যমান সংঘাতমুখর রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে গণতান্ত্রিক অধিকার পুনরুদ্ধার এবং কেয়ারটেকার সরকার ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার দাবিতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আইন হচ্ছে সংবিধান। রাষ্ট্র পরিচালিত হয় সংবিধানের দ্বারা। সংবিধান জনগণের নিরাপত্তা ও অধিকারের বিষয়ে যে নিশ্চয়তা দিয়েছে তা বাস্তবায়ন করার দায়িত্ব হচ্ছে প্রশাসনের। এসব অধিকারের ক্ষেত্রে কোনো প্রতিবন্ধকতা তৈরি করা হলে সে ব্যাপারে আইনি প্রতিকার পাওয়ার স্থান হচ্ছে দেশের সর্বোচ্চ আদালত।

অধ্যাপক মুজিবুর রহমান বলেন, জামায়াত সংসদে প্রতিনিধিত্বকারী একটি রাজনৈতিক দল। সংসদে জামায়াতের প্রতিনিধিত্ব থাকা এবং স্থানীয় সরকার নির্বাচনে জামায়াতের বিজয় প্রমাণ করে যে, জামায়াত দেশের তৃতীয় বৃহৎ রাজনৈতিক দল। জামায়াতে ইসলামীকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করতে না পেরে এবং জামায়াতকে নির্বাচন থেকে বাইরে রাখার অপকৌশল হিসেবে সরকারের পৃষ্ঠপোষকতায় জামায়াতের নিবন্ধন চ্যালেঞ্জ করে কিছু অনিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি রিট দায়ের করেন।

শেয়ার করুন।

এ জাতীয় আরো খবর।

Deprecated: Function WP_Query was called with an argument that is deprecated since version 3.1.0! caller_get_posts is deprecated. Use ignore_sticky_posts instead. in /home/amaderkuakata/public_html/wp-includes/functions.php on line 5737
© 2018 ©  বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।
Design & Developed BY Hafijur Rahman Akas