1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০, ১১:৩০ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪
শিরোনামঃ-
সাংবাদিক রেহেনার পরিবারকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ৫লাখ টাকা প্রদান করায় বিএমএসএফের কৃতজ্ঞতা। রবিউল ও রায়হান হত্যায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তারের দাবীতে দাদু ভাই ছইল ফাউন্ডেশনের উদ্দোগে মানববন্ধন। রামগঞ্জ কিশোর গ্যাং হাবিবের হাতে হামলার শিকার রিয়াজ উদ্দিনের বসত ঘরে।। বেনাপোল কাস্টমস কর্তৃক শুল্কায়ন কার্যক্রম বন্ধের কারণে রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সরকার। তালতলীতে প্রচারণার শেষ দিন নৌকার প্রার্থীর মাইক ভাঙচুর। জাফলংয়ের ডাউকি নদী থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার।। বাগেরহাটে ৭ বছরের শিশু ধর্ষনের বিচার মাত্র ৭ দিনে।ধর্ষকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড। ঢাকা আরিচা মহাসড়কে মুরগী বোঝাই পিকআপ ছিনতাই গ্রেফতার ৪। হাকিমপুর দলিল লেখক সমিতির নির্বাচলে সভাপতি আনোয়ার হোসেন ও সাথারন সম্পাদক পদে কাইছার আলী নির্বাচিত।। গোয়ালন্দে ৬ জেলে ও ৫ দালালকে ১ মাস করে কারাদন্ড।

কুয়াকাটায় মা ইলিশ রক্ষায় সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত।।

  • আপডেট সময় বুধবার, ৭ অক্টোবর, ২০২০
  • ৪৪ বার

বিশেষ প্রতিনিধিঃ “মা ইলিশ রক্ষা করি, ইলিশ সম্পদ বৃদ্ধি করি”এই শ্লোগানকে সামনে রেখে কুয়াকাটায় মা ইলিশ রক্ষায় সচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 
কলাপাড়া উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তরের আয়োজনে মঙ্গলবার (০৭ অক্টোবর ) দুপুরে কুয়াকাটা মেয়র মৎস্য মার্কেটে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুম আগামী ১৪ই অক্টোবর হতে ৪ নভেম্বর ২০২০ পর্যন্ত ২২দিন ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ। মৎস্য সংরক্ষণ আইন ১৯৫০ এর বিধি বিধান অনুযায়ী নিষিদ্ধকালীন সময়ে সারাদেশে সকল ধরনের মৎস্য পরিবহন,মজুদ,বাজারজাতকরণ,ক্রয়-বিক্রয় ও বিনিময় নিষিদ্ধ ও দন্ডনীয় অপরাধ। এ আইন অমান্যকারীকে এক থেকে সর্বোচ্চ দুই বছর সশ্রম কারাদন্ড অথবা ৫ হাজার টাকা জরিমানা অথবা উভয় দন্ডে দন্ডিত করা যাবে।
কলাপাড়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ জহিরুন্নবীর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, কলাপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা, এস এম রাকিবুল আহসান, বিশেষ অতিথি ছিলেন কুয়াকাটা পৌর মেয়র আব্দুল বারেক মোল্লা, কুয়াকাটা নৌ-পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ মোহাম্মদ মাহমুদ মোল্লা।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এসএম রাকিবুল আহসান বলেন, ইলিশ মাছ আমাদের জাতীয় সম্পদ। বাংলাদেশের অহংকার রূপালী ইলিশ সম্পদ। এর রক্ষনাবেক্ষনের দায়িত্ব আমাদের সকলের। আমরা সকলে এক যোগে ইলিশ সংরক্ষনে এগিয়ে আসি। বিশ্বের প্রধান ইলিশ উৎপাদনকারী  দেশ হিসেবে আমরা স্বীকৃতি পেয়েছি। সুতরাং এই অর্জনকে আমাদের অটুট রাখতে হবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পৌর মেয়র আব্দুল বারেক মোল্লা বলেন, সরকারের এই যুগোপযোগী পদক্ষেপ এর জন্য সমুদ্রে ইলিশের পরিমাণ বেড়েছে। উপস্থিত সকল জেলেদের মা ইলিশ রক্ষায় অবরোধকালীন সময় সমুদ্রে মাছ না ধরার  অনুরোধ জানান তিনি।উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা  মুহাম্মদ জহিরুন্নবী বলেন, মা ইলিশ সংরক্ষণের জন্য সরকার নানামূখী পদক্ষেপ নিয়েছে। 
অবরোধকালীণ সময়ে জেলেদের প্রনোদণা  দিচ্ছে সরকার। মৎস্য সংরক্ষন আইন বাস্তবায়ন করার লক্ষে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। তাহলে সমুদ্রে অনেক ইলিশের উৎপাদন বাড়বে এবং বড় সাইজের ইলিশ জেলেদের জালে ধরা পরবে। এসময় তিনি আরও জানান, সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোজ জেলের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে সরকার ৫০হাজার টাকা করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।  এসময় তিনি জেলে ও মৎস্য আড়দদারদের সরকারের আইন মেনে চলার জন্য অনুরোধ জানান। 
অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আশার আলো জেলে সমিতির সভাপতি মোঃ নিজাম শেখ, কুয়াকাটা মৎস্য আড়ৎদার সমিতির সাবেক সভাপতি মোঃ বশির হাওলাদার প্রমুখ।এর আগে সকাল ৯টায় মৎস্যবন্দর মহিপুর এবং বেলা সাড়ে ১১টায় আলীপুরে মা ইলিশ রক্ষায় সচেতনতামূলক সভা করেন।

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর
© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas