জামিনে মুক্তি পেয়ে বেপরোয়া আসামীরা শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপরে প্রান নাসের হুমকি দেয় সন্ত্রাসীরা।

20

মহিপুর থানা প্রতিনিধি :
মহিপুরথানাধীন সদর ইউনিয়ানে ফের বেপরোয়া হয়ে উঠেছে জামিনে মুক্তি পেয়ে আসামীরা গত ২৭ এপ্রিল শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের হত্যার উদ্দেশ্যে প্রকাশ্যে
দেশীয় অস্ত্র দিয়ে তাদেরকে এলো এলোপাতাড়ি ভাবে
কুপীয়ে জখম করে।

১৫দিনের মাথায় আসামীরা জামিনে মুক্তি পেয়ে গতকাল রাত আনুমানিক ১ টায় মহিপুর ইউনিয়নের সুধীরপুর গ্রামের আইয়ুব খান বাচ্চুর ঘড় এবং তার ছোটভাই জহির খানের ঘাড়ের সামনের এবং পেছনের সোলার সিস্টেম লাইট অকেজ এবং টিনের বেড়া পিটিয়ে ভেঙ্গে ফেলে তাদের প্রান নাসের হুমকি প্রদান করে আাসামি তাদেরই আপন মেজ ভাই জাকির, তার ছেলে রুবেল, রাসেল, রাজু ও তার স্ত্রী রোকেয়া বেগম।

শহীদ মুক্তিযোদ্ধার বড় ছেলে হামলার শিকার আইয়ুব খান বাচ্চু বলেন ওরা আমার উপরে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করে আমার একটি চোখ পুরোপুরি অকেজো করে দেয়েছে এবং এর মামলায় মাত্র ১৫ দিনের মাথায় আসামিরা জামিনে বেরিয়ে আবার বেপরোয়া তান্ডব শুরু করেছে।

তিনি আরো বলেন এই হামলার পিছনে ইন্ধন দেয় আসামি জাকিরের সালা একাদিক মমামলার আসামি সক্রিয় সন্ত্রাসী, সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি বিক্রিত করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়ানোর দায়ে মামলার আসামি ও ক্যাডার মিজান প্যাদা।

আমরা শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবার জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমাদের জীবনের নিরাপত্তা চাই।
এসম তার এবং আসামির ছোটভাই জহির খান বলেন আসামীরা এর আগে আমার উপরেও হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা চালিয়ে ছিলো। তাদের কোন অদৃশ্য শক্তির কারনে তারা বার বার এতো বড় বড় অপরাধ করেও পার পেয়ে যায়।
আমরা বর্তমানে আমাদের জীবন নিয়ে শংকায় রয়েছি।

এ বিষয়ে শহিদ মুক্তিযোদ্ধার নাতি মিজানুর রহমান খান বলেন মৌখিক ভাবে থানা পুলিশকে অবগত করা হয়েছে এবং অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here