গার্মেন্টস দোকান-ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণার আগে কিস্তি বন্ধ করার প্রয়োজন।।

229

আমাদের কুৃয়াকাটা ডেস্ক।।
গার্মেন্টস দোকান-ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণার আগে কিস্তি বন্ধ করার প্রয়োজন, করোনাভাইরাস এর সতর্কতার জন্য যদি দেশের স্কুল কলেজসহ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হতে পারে, তবে গার্মেন্টস শিল্পে ছুটি কেন নয়। তবে দোকান ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গার্মেন্টস বন্ধ রাখার আগে কিস্তি বন্ধ করা প্রয়োজন।

কেননা বর্তমানে বাংলাদেশের নিম্ন থেকে মধ্যবিত্ত পরিবারের ভিতরে প্রায় ৮৫ ভাগ মানুষ বিভিন্ন সমিতি, এনজিও, ব্যাংক থেকে ঋণ করে নিয়ম অনুযায়ী তাদের কিস্তি চালিয়ে যেতে হচ্ছে! তাই যতই ঘোষণা আসুন তাদের কিস্তির টাকা যোগাড় করতে বাসার বাহিরে কাজে ছুটতেই হবে। তাই ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ও মানুষকে বাসায় বন্দি ঘোষণার আগে দেশের বিভিন্ন এনজিও ব্যাংকের কিস্তি বন্ধ করার প্রয়োজন।

না হলে যত ঘোষণা আসুক ঋণ নেয়া সাধারণ মানুষেরা কিস্তির টাকা যোগাড় করার জন্য কাজে বেরুতে বাধ্য হবে এবং করনোয় আক্রান্ত হবে। কিস্তি বন্ধ না করলে নিরহ মানুষ গুলো করোনায় নয়, কিস্তির জ্বালায় মরবে……! তাই দোকান ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ও সাধারণ মানুষের বাহিরে বেরুনোর নিষেধাজ্ঞা জারির আগে এই মুহুর্তে দেশের ঋণদানকারী সকল ব্যাংক ও এনজিও গুলোর কিস্তি বন্ধের জন্য মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করেছেন এ দেশের ঋণশোধে সংগ্রাম করে চলা ভুক্তভোগী সাধারণ মানুষেরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here