1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০৩:৩৭ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪
শিরোনামঃ-
অন্যের স্ত্রী নগদ টাকা ও স্বর্নালঙ্কার চুরি; কলাপাড়ায় কথিত সাংবাদিকের নামে সমন জারি কলাপাড়া আন্ধার মানিক নদীর মোহনায় জলদস্যু জোংলা শাহালম বাহিনী কর্তৃক ট্রলার ডাকাতি, অপহরণ-১। বঙ্গোপসাগরে নৌ পুলিশের অভিযানে ১৬ জেলে আটক, ৪ ট্রলার মালিককে জরিমানা । কলাপাড়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মৎস্য বন্দর আলিপুরে ট্রলার মালিক ও মাঝি সমিতির বিক্ষোভ মিছিল মহিপুরে কোস্ট গার্ডের অভিযান,২ লাখ ৫০ হাজার বাগদা চিংড়ি রেনু জব্দ কুয়াকাটায় বিশ্ব সমুদ্র দিবসে জীব বৈচিত্র্য রক্ষার দাবি। ‘ও কিসের সাংবাদিক’? রাঙ্গাবালীতে প্রকাশ্য দিবালোকে ব্যবসায়ীর ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা ছিনতাই রাজবাড়ীতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের পক্ষ থেকে বাজেট কে স্বাগত জানিয়ে গোয়ালন্দে আনন্দ মিছিল অনুষ্ঠিত হয় রাজবাড়ীতে গোয়ালন্দে গুরু খামারিদের মাঝে প্রদর্শনী ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয় কলাপাড়ায় প্রানীসম্পদ প্রদর্শনীর উদ্বোধন অনুষ্ঠিত ॥ কলাপাড়ায় ধর্ষনের নিউজ করায় সাংবাদিককে হত্যার হুমকি।

বরগুনায় স্বামীকে খুন : ৮ মাস পর হত্যারহস্য উদঘাটন” স্ত্রী ও পরকীয়া প্রেমিক গ্রেফতার

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ২১০ বার


সোহরাব বরগুনা জেলা প্রতিনিধি:


বরগুনায় এক শিক্ষককে হত্যা করে হৃদরোগে মারা গেছেন বলে চালিয়ে দিয়েছেন স্ত্রী। তবে বেড়িয়ে এলো হত্যারহস্য।
হাসতে হাসতে স্বামীকে হত্যার পরিকল্পনা করে নির্মমভাবে ওই শিক্ষককে হত্যা করেছে স্ত্রী ও তার প্রেমিক। হত্যার পরে স্বামী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে বলে তাড়িঘরি করে মৃতদেহ দাফন করে দিয়ে হত্যার মিশন সফল করে সবাইকে বোকা বানায় তারা। এ ঘটনায় হয়নি কোনো মামলাও।

অনুসন্ধানে জানা যায়, গত বছরের মে মাস থেকে বরগুনা সদর উপজেলার গোলবুনিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক নাসির হাওলাদারকে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়। ২৩ মে রাতে স্বামীকে খাবারের সাথে রাত ৮টায় ঘুমের ঔষুধ মিশিয়ে অজ্ঞান করে স্ত্রী মিতু। রাত ১১টার পরে রাজুকে ফোন করে বাসায় আসতে বলে মিতু। রাত ১১টা ৪০ এর পরে ওই শিক্ষকের বাসায় এসে হাত-পা বেঁধে পায়ের উপরে উঠে বসে রাজু। স্ত্রী মিতু স্বামীর বুকের উপরে উঠে কম্বল দিয়ে শ্বাষরোধ করে হত্যার চেষ্টা করলে প্রাণ ভিক্ষা চান ওই শিক্ষক। টানা দু’ঘন্টা দন্তাদস্তির এক পর্যায়ে নিস্তেজ হয়ে যায় নাসিরের দেহ। সাকসেস হয় কিলিং মিশন। পরদিন সকালে তরিগড়ি করে তাকে দাফন করা হয়।

এর আগেও বেশ কয়েকবার ওই স্কুল শিক্ষককে হত্যার চেষ্টা করে তার স্ত্রী মিতু আক্তার।

এলাকাবাসীরা জানায়, ওদিন ছিল শেষ রমজান। সেহরীর কিছুক্ষন আগে নাসির স্যারের বাড়িতে কান্নাকাটির আওয়াজ পেয়ে আমরা সেখানে ছুটে যাই। গিয়ে দেখি ঘরের দরজা খোলা এবং মিতু ও তার মেয়ে নুসরাত কান্নাকাটি করছে। এসময় নাসির স্যারের মুখে রক্ত দেখেছি আমরা।

স্কুল শিক্ষক নাসিরের বড়ভাই আবদুল জলিল জানান, আমার ভাই অত্যান্ত নরম মানুষ ছিল। এলাকার সবার সাথে তার ভালো সম্পর্ক ছিল। তার স্ত্রী মিতু ছিল মাদকাসক্ত। আমাদের কাউকে সে সহ্য করতে পারত না। যারা আমার ভাইকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে তাদের বিচার চাই আমরা।

হাসতে হাসতে হত্যার এ পরিকল্পনা করেছিলো নিহত শিক্ষকের স্ত্রী মিতু ও তার পরকীয়া প্রেমিক একই এলাকার বারেকের ছেলে রাজু মিয়া। হত্যাকারী রাজুকে খুঁজে বের করে তার সাথে কথা বলতে চাইলেও কথা বলতে রাজী হয়নি রাজু। ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর নাসিরের বড় ভাই এবং অজ্ঞাত তিন জনকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেন। বুধবার শেষ রাতে মিতু এবং রাজুকে আটক করে পুলিশ। বরগুনা পুলিশ সুপার মুহম্মদ জাহাঙ্গীর মল্লিক জানিয়েছেন দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে পাশাপাশি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে ফোনালাপটি।

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর
© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas