1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ০২:০২ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪
শিরোনামঃ-
অন্যের স্ত্রী নগদ টাকা ও স্বর্নালঙ্কার চুরি; কলাপাড়ায় কথিত সাংবাদিকের নামে সমন জারি কলাপাড়া আন্ধার মানিক নদীর মোহনায় জলদস্যু জোংলা শাহালম বাহিনী কর্তৃক ট্রলার ডাকাতি, অপহরণ-১। টাঙ্গাইলে বিটাস ফার্মাসিউটিক্যালস ঔষধ কারখানায় এক লক্ষ টাকা জরিমানা করে ভ্রাম্যমান আদালত আত্রাই উপজেলাপ্রেস ক্লাবের উদ্যোগে হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ What Is The Difference Between Artificial Intelligence Machine Learning and Profound Learning? পটুয়াখালীর দুমকীতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে প্রভাবশালীদের ভুমি দখলের পায়তারা! মহিপুর ১ ব্যাগ টাকাসহ ১ চোর আটক। মহিপুরে আইনকে পুঁজি করে সাধারন মানুষকে ফাঁসানোর অভিযোগ। মহিপুরে আইনকে পুঁজি করে সাধারন মানুষকে ফাঁসানোর অভিযোগ। বিএমএসএফের কেন্দ্রীয় গবেষণা সম্পাদক বেলালকে রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা দেয়া হচ্ছে। গলাচিপায় শিক্ষক-ছাত্রীর আপত্তিকর কথাবার্তা ফাঁস সমালোচনার ঝড়। রমজানের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা সুবেদার আফতাব উদ্দীন

বঙ্গবন্ধুর জন্ম-শতবর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীনদের ভূমিসহ পূর্নবাসন বরাদ্ধে ৩৫/৪০ টাকা অর্থ বানিজ্যের ব্যাপক অনিয়ম!!পর্ব ২

  • আপডেট সময় শুক্রবার, ৫ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৬৫ বার


মোহাম্মদ রুমী শরীফ বিশেষ প্রতিনিধি :

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুত প্রতিটি ঘরহীন মানুষকে ঘর তৈরি করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগের অধীনে বিভিন্ন কর্মসূচির আওতায় ঘরহীন পরিবারকে ঘর তৈরি করে দেওয়ার কার্যক্রম চললেও এটি হচ্ছে পৃথক কর্মসূচি। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী মুজিববর্ষ পালন উপলক্ষে সরকারের একটি বড় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সারা দেশের ৮ লাখ ৮২ হাজার ৩৩টি ঘরহীন পরিবারকে আধপাকা টিন-শেড ঘর নির্মাণ করে দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়। এ লক্ষ্যে নেওয়া দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের একটি প্রকল্প প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অনুমোদন পেয়েছে। আগামী বছরের ১৭ মার্চের মধ্যেই এসব ঘরহীন মানুষকে নিজের ঘরে তুলে দেওয়া সম্ভব হবে। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, চলতি ২০২০ সালের ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা করেছিলেন, মুজিববর্ষে দেশে কোনও মানুষ গৃহহীন থাকবে না। সরকার সব ভূমিহীন, গৃহহীন মানুষকে ঘর তৈরি করে দেবে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে চলতি বছরের ১৭ মার্চ থেকে আগামী ২০২১ সালের ১৭ মার্চ পর্যন্ত সময়কে সরকার মুজিববর্ষ ঘোষণা করে। এই সময়ের মধ্যেই এসব ঘর নির্মাণ কাজ শেষ করতে চায় সরকার।

জানা গেছে, সরকারের তিনটি কর্মসূচির আওতায় দেশের ভূমিহীন ঠিকানাহীন মানুষদের ঘর তৈরি করে দেওয়ার কাজ করছে। এসব কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের আওতায় দুর্যোগ সহনীয় বাড়ি প্রকল্প। ভূমি মন্ত্রণালয়ের আওতায় গুচ্ছগ্রাম প্রকল্প ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ প্রকল্প-২। এর বাইরে আমার বাড়ি, আমার খামার প্রকল্পও রয়েছে। তবে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, বিভাগ ও সংস্থা যৌথভাবে গৃহহীনদের জন্য নেওয়া এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে। প্রতিটি জেলার জেলা প্রশাসকরা মাঠ পর্যায়ে প্রকল্পের অগ্রগতি তদারকি করবেন। অনেক আগে থেকেই এই তিনটি প্রকল্পের মাধ্যমে নদীভাঙন পরিবার, বেদে পরিবার ও হিজড়াসহ বিভিন্ন কারণে যারা ভূমিহীন ও গৃহহীন হয়েছেন তাদের ঘর নির্মাণ করে দেওয়া হচ্ছে। ইতোমধ্যেই এসব প্রকল্পের অনেক বাড়িঘর সংশ্লিষ্টদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। আবার অনেক বাড়ি হস্তান্তরের প্রক্রিয়ায় রয়েছে। কিন্তু এর ধারাবাহিকতায় যদি অসহায় হতদরিদ্র ও ভূমিহীনদের থেকে নেওয়া হয় মোটা অংকের টাকা তাহলে ভূমিহীনরা আশ্রয়স্থল পাবার জায়গায়  তাদের নামতে হবে মানুষের দ্বারে দ্বারে , এরই ধারাবাহিকতায় দূর্নীতি অনিয়ম মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে,

কলাপাড়া উপজেলাধীন ৫/৬ ইউনিয়ন

পরিষদের বিরুদ্ধে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক  বঙ্গবন্ধুর জন্ম-শতবর্ষ উপলক্ষে ভূমিহীনদের ভূমিসহ পূর্নবাসন বরাদ্ধে বন্ঠনকারীদের বিরুদ্ধে অর্থ বানিজ্যের ব্যাপক অনিয়ম উঠেছে। অর্থ বানিজ্যের কান ফাসা-ফুসিতে ভারী হয়ে উঠেছে এলাকা। সরেজমিনে যাওয়া হয়, গত ২৭ জানুয়ারী ২১ইং সকাল ৯ টার দিকে লতাচাপলী ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের নয়ামিশ্রি পাড়া গ্রামে মৃত্যু ইমান আলীর কন্যা ফুলভানু বেগমকে পূর্নবাসনের তালিকায় নাম অর্ন্তভুক্ত করতে ৪০ হাজার টাকা নেয়ার লোমহর্ষক ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। যা সংশ্লীষ্ট মহিলা সংরক্ষিত আসনের নির্বাচিত সদস্যা মোসাঃ শাহিনুর বেগম ও ৬নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আনছার মোল্লার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ রয়েছে । এবিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আনছার মোল্লার কাছে যানতে চাইলে তিনি বলেন ঘরের মালামাল কেরিংয়ের জন্য ১৫ হাজার টাকা নেয়ার সত্যতা স্বীকার করেন সংবাদকর্মীদের কাছে । অভিযুক্ত সংরক্ষিত মহিলা সদস্যার সাথে যোগাযোগ করতে তার বাড়িতে গিয়ে না পেয়ে, মুঠোফোনে ০১৭৫৫২৪৭০৫৪ নম্বরে একাধীকবার যোগাযোগ করে তাকে পাওয়া যায় নাই। অপর দিকে ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ হারুন ভদ্র জানিয়েছেন, ইউনিয়ন পরিষদে বসেই চেয়ারম্যান এর উপস্থিতিতে হতদরিদ্রদের কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা করে উত্তোলণের কথা গণমাধ্যমে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন। ইউপি চেয়ারম্যান আনসার উদ্দিন মোল্লার কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে, তিনি ঘটনাটি এড়িয়ে যেতে ধর্মের কাহিনী বর্ণনা করে, শেষ পর্যন্ত ক্যারিং খরচ বাবদ কিছু টাকা নিতে পারে বলে স্বীকারোক্তি দেন।  সরকারের দেয়া ঘর উত্তোলনে কোন কন্টাক্ট দেয়া হয়েছে কিনা ? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কন্টাক্ট দেয়া হয়েছে । ক্যারিং খরচ নেয়া হবে তাহলে কন্টাক্টর কি করবে? গণমাধ্যম এর সঠিক ধরনের প্রশ্নের সম্মুখীন হলে, তার নিজের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ থাকলে তার কাছে নিয়ে যেতে বলেন। মুঠো ফোনে ইউপি সদস্যকে কথা বলতে দিলে তিনি কথা না বলে ফোনটা রেখে দেয়।

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর
© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas