1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৮:৩৪ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪
শিরোনামঃ-
অন্যের স্ত্রী নগদ টাকা ও স্বর্নালঙ্কার চুরি; কলাপাড়ায় কথিত সাংবাদিকের নামে সমন জারি কলাপাড়া আন্ধার মানিক নদীর মোহনায় জলদস্যু জোংলা শাহালম বাহিনী কর্তৃক ট্রলার ডাকাতি, অপহরণ-১। বঙ্গোপসাগরে নৌ পুলিশের অভিযানে ১৬ জেলে আটক, ৪ ট্রলার মালিককে জরিমানা । কলাপাড়া উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মৎস্য বন্দর আলিপুরে ট্রলার মালিক ও মাঝি সমিতির বিক্ষোভ মিছিল মহিপুরে কোস্ট গার্ডের অভিযান,২ লাখ ৫০ হাজার বাগদা চিংড়ি রেনু জব্দ কুয়াকাটায় বিশ্ব সমুদ্র দিবসে জীব বৈচিত্র্য রক্ষার দাবি। ‘ও কিসের সাংবাদিক’? রাঙ্গাবালীতে প্রকাশ্য দিবালোকে ব্যবসায়ীর ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা ছিনতাই রাজবাড়ীতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের পক্ষ থেকে বাজেট কে স্বাগত জানিয়ে গোয়ালন্দে আনন্দ মিছিল অনুষ্ঠিত হয় রাজবাড়ীতে গোয়ালন্দে গুরু খামারিদের মাঝে প্রদর্শনী ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয় কলাপাড়ায় প্রানীসম্পদ প্রদর্শনীর উদ্বোধন অনুষ্ঠিত ॥ কলাপাড়ায় ধর্ষনের নিউজ করায় সাংবাদিককে হত্যার হুমকি।

পুলিশের ছেলে মামুনের তান্ডব

  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ৩১ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১৩৫ বার

সাইফুল ইসলাম জুলহাস স্টাফ রিপোর্টার:
বরগুনা সদর উপজেলার ১০নং নলটোনা ইউনিয়নের পুলিশ সদস্য বাশার মুসল্লির ছেলে মামুন মুসুল্লির নেতৃত্বে হামলার শিকার হন একই গ্রামের জলিল, সেন্টু, মিনহাজ উদ্দিন , আমেনা ও রাবেয়া আহতরা বরগুনা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জানা যায়, শুক্রবার সকালে মিনহাজ উদ্দিন কে মারধর শুরু করলে তার ছেলেরা ও ছেলের বউ সহ সকলে গেলে তাদেরকেও মারধর শুরু করে মামুন ও তার সহযোগী মিজানুর, জাফর দেলোয়ার, হাকিম ও নুপুর সহ অনেকে। এক পর্যায়ে স্থানীয়রা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহতদের হাসপাতালে নিতে বাধা প্রদান করেন মামুনের লাঠিয়াল বাহিনী। পরে বরগুনা সদর থানার এসআই নুরুজ্জামান ও বাবুগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ি থেকে পুলিশ এসে আহতদের বরগুনা সদর হাসপাতাল পাঠানোর ব্যাবস্থা করে সাথে করে হাসপাতালে পৌঁছে দেয়।

স্থানীয়রা বলেন, জমিজমা নিয়ে এদের ভিতর আগে থেকেই দ্বন্দ্ব ছিল মামুনের বাবা পুলিশে কর্মরত থাকায় মামুনের তাণ্ডব বেশি, এলাকার সালিশ ব্যবস্থা মামুন মানতে চান না। টাকার পাওয়ার দেখিয়ে এগুলো করে আসছেন।

বাদল মিয়া বলেন, মামুনের বাবা পুলিশ হওয়ায় এলাকায় বিভিন্ন দাপট দেখিয়ে আসছেন। মামুন মাদকের সাথে জড়িত। মামুনের কথার বাইরে গেলে মামুনের বাহিনী নিয়ে তাদের ওপর হামলা চালায়। মামুনের হামলার শিকার অনেকেই। টাকার গরমে মামুন মানুষকে অনেকভাবে নির্যাতন করে থাকে! তারা খুবই প্রভাবশালী তাদের অত্যাচারে এলাকার মানুষ অতিষ্ঠ আমরা এর বিচার চাই।

অভিযুক্ত মামুনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তাকে বার বার ফোন করা সত্ত্বেও তিনি ফোন ধরেননি।

বরগুনা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) শহিদুল ইসলাম বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে ভুক্তভোগীদের হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে। এবং বাদি কর্তিক মামলা প্রকৃয়াঅধীন রয়েছে।

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর
© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas