1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১, ০৬:৫৪ অপরাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪
শিরোনামঃ-
অন্যের স্ত্রী নগদ টাকা ও স্বর্নালঙ্কার চুরি; কলাপাড়ায় কথিত সাংবাদিকের নামে সমন জারি কলাপাড়া আন্ধার মানিক নদীর মোহনায় জলদস্যু জোংলা শাহালম বাহিনী কর্তৃক ট্রলার ডাকাতি, অপহরণ-১। বরগুনা সদর থানার তদন্ত ওসির উদ্যোগে অসহায় শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ এনজিও( NGO) তে কেরিয়ার গড়তে মানুসিক প্রস্তুতি সবচেয়ে বেশী গুরুত্বপূর্ণ । এনজিওতে অর্জিত অভিজ্ঞতাকে তারা অন্যান্য সেক্টরের রিসার্চ বিভাগে কাজে লাগাতে পারেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জে করোনায় বন্ধ ছয়টি ট্রেন প্রকল্প চালুর দাবিতে সংবাদ সম্মেলন। মধুখালীতে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের সভাপতি আয়শা খানমের মৃত্যুতে শোক সভা অনুষ্ঠিত। চাপাইনবয়াবগঞ্জ দোয়া মাহফিল ও শীত বস্ত্র বিতরণের মধ্যে দিয়ে মরহুম বাচ্চু ডাঃ এর ১২ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত। পায়রা বন্দরের ৭৫ কিমি দীর্ঘ রাবনাবাদ চ্যানেলের নাব্যতা বজায় রাখতে জরুরি রক্ষণাবেক্ষন ড্রেজিং উদ্বোধন। মেশিনের মুড়ির দাপটে হারিয়ে যাচ্ছে, গ্রামবাংলার ঐতিহ্যবাহী হাতে ভাজা দেশী মুড়ি। কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী ২নং সরঃ প্রাঃ বিদ্যালয়ের আজিজা ম্যাডামের কোচিং বানিজ্য আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোঃ আমিনুল ইসলাম সোহাগ ডোর টু ডোর ক্যাম্পেইন নিয়ে ছুটে যাচ্ছে সাধারণ মানুষের কাছে।

৭৮ বছর পার হলেও হতদরিদ্র সোনাবানের ভাগ্যে জুটেনি সরকারি অনুদান!

  • আপডেট সময় সোমবার, ৪ জানুয়ারী, ২০২১
  • ১১৬ বার


পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধিঃ

পটুয়াখালী সদর উপজেলা মাদার বুনিয়া ইউনিয়নের চালিতা বুনিয়া গ্রামে আসমানীদের মতই জীবনযাপন করছেন হতদরিদ্র সোনাবান (৭৮)।

খোজ নিয়ে জানাযায়,সোনাবান মাদার বুনিয়া ইউনিয়নের চালিতাবুনিয়া গ্রামের ৭ নং ওয়ার্ডের
বাসিন্দা মৃত্যু কাঞ্চন গাজীর স্ত্রী সোনাবান তিনি ১৫ আগষ্ট ১৯৪২ সনে তার জন্ম।

সোনাবানের টানে পোড়েন সংসারে ১ পুএ ও ৩ কন্যা সন্তানের জননী, এই বৃদ্ধ মাতা। স্বামীর অকাল মৃত্যুতে তৎকালীন সময় সংসারে হাল ধরেছিলেন এই বৃদ্ধা। কালের আর্বতনে দারিদ্র্যতার কষাঘাতে পড়ে যায় এই বৃদ্ধা।

বর্তমানে সন্তানরা সারাদেশে কোভিট-১৯ মহামারী করোনার প্রাদুর্ভাবের কারনে কোথাও মিলছে না কাজ তাই অভাবের সংসারে হতভাগা মায়ের সুচিকিৎসা দিতে পারেনী সন্তানরা। বৃদ্ধ মায়ের চিকিৎসা ও ভরন পোষনের অভাব মিটাতে না পেরে মাকে রেখে আসে বৃদ্ধাশ্রমে। শারিরীক অবস্থার কারনে থাকা হয়নি বৃদ্ধাশ্রমে। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হলে নড়েচড়ে বসে গনমাধ্য কর্মীরা।

সরেজমিনে জানা যায়, ৭৮ বছর পার হলেও হতদরিদ্র সোনাবানের ভাগ্যে জুটেনি সরকারি অনুদান! আবেগপ্লুত হয়ে গণমাধ্যমকে বলেন, “আমার জীবনতো শেষ হইয়্যা গেছে, হুনি কতো মানসে কত কিছু পায়? কই, আমারেতো কেউ খবরও লইনাই! মেম্বার, চেয়ারম্যানের কাছে গেলে কত কথা হুনতে হয়, হ্যা, আর কইয়া কি হইবে বাবা! ” অগোছালো কথা গুলো ৭৮ বছরের হতদরিদ্র সোনাবান তার জীবনের ইতিহাস তুলে ধরেন।

এবিষয় মাদার বুনিয়া ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের মেম্বার মো,মাসুদ’র কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার কাছে এখন পর্যন্ত এই নামের কেউ আসেনি। আসলে অবশ্যই তাকে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে। আমরা সদাসর্বদা অসহায় হতদরিদ্রদের পাশেই আছি থাকব।

উক্ত ব্যপারে ইউপি চেয়ারম্যান মো,মিলন মাঝির সাথে কথা বলতে তার মুঠোফোন ০১৭১২-৬৬৯২১৩ নাম্বারে একাধিক বার ফোন করলেও ফোনটি রিসিভ হয়নি।

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর
© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas