1. kaiumkuakata@gmail.com : Ab kaium : Ab kaium
  2. akaskuakata@gmail.com : akas :
  3. mithukuakata@gmail.com : mithu :
  4. mizankuakata@gmail.com : mizan :
  5. habibullahkhanrabbi@gmail.com : rabbi :
  6. amaderkuakata.r@gmail.com : rumi sorif : rumi sorif
শুক্রবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ০২:৩২ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ-
প্রতিটি জেলা উপজেলায় প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। যোগাযোগঃ-০১৯১১১৪৫০৯১, ০১৭১২৭৪৫৬৭৪
শিরোনামঃ-
মহিপুরে আর্ন্তজাতিক প্রতিবন্ধী দিবস পালিত। কলাপাড়ায় ইয়াবাসহ পৌর ছাত্রলীগ সাধারন সম্পাদক জুয়েল গ্রেফতার। টাংগাইলে কৃষকলীগ সংগ্রামপুর ইউনিয়ন শাখা ত্রি- বার্ষিক সম্মেলনে সাবেক এমপি রানা। বেতাগী পৌরনির্বাচনে ৩৯ জন প্রার্থী মনােনয়ন পত্র দাখিল। কুয়াকাটা পৌরসভা নির্বাচনে- মেয়র প্রার্থী ৪ জনেরমনোনয়নপত্র জমা দিলেন। Investing In Intraday Inventory Tips কুয়াকাটায় জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে যুবলীগের বিক্ষোভ সমাবেশ। কলাপাড়ায় মুক্তিযোদ্ধাকে কুপিয়ে জখম করায়,ভাইয়া বাহিনীর প্রধান চেয়ারম্যান শিমু ও স্ত্রী বিএনপি নেত্রী এলিজাসহ গ্রেফতার- ৫ \ কলাপাড়ায় পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ছাড়াই চলছে অবৈধভাবে ইটভাটা, ক্ষতির স্বীকার এলাকাবাসী। যুগ্ম কমিশনারের বরখাস্ত চেয়ে বেনাপোল কাস্টমস হাউসে বিক্ষোভ।

তালতলীতে প্রচারণার শেষ দিন নৌকার প্রার্থীর মাইক ভাঙচুর।

  • আপডেট সময় সোমবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২০
  • ৪৪ বার

বরগুনা প্রতিনিধি,,

বরগুনার তালতলীতে কড়ইবাড়িয়া ইউপি উপ নির্বাচনে আজ প্রচারণার শেষ দিন। এই শেষ সময় আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রার্থীর মাইক ভাঙচুর ও গাড়িতে থাকা প্রচারকারী জাহিদ (২৬)নামের একজন কে পিটিয়ে আহত করেন স্বতন্ত্র প্রার্থীর ঘোড়া সমর্থকরা।

রবিবার(১৮ অক্টোবর)সন্ধা সাড়ে টার দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থীর বাড়ির সামনের সড়ক দিয়ে নৌকার প্রচার মাইক চালানোর সময় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কড়ইবাড়িয়া ইপি উপ নির্বাচনের শেষ প্রচার-প্রচারণা করেন আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রার্থী নূর মোহাম্মদ মাস্টার । প্রতিদিনের মতোই শেষ দিনেও আটো – বোরাক করে প্রচার মাইক ও প্রচারকারী জাহিদ স্বতন্ত্র প্রার্থী মানসুরুল আলম এর বাড়ির সামনের সড়ক দিয়ে যাচ্ছিলেন । এমন সময় সন্ধা সাড়ে ৭টার দিকে দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী সমর্থকরা নৌকার প্রচারণার মাইক ভাঙচুর ও প্রচারকারী জাহিদকে বেধড়ক মারধর। পরে আহত জাহিদ কে উদ্ধার করে তালতলী হাসপাতাল নেওয়া হয় । পরে তালতলী থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়। এ ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে।

আহত জাহিদ বলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী মানসুরুল আলম এর বাড়ির সামনে দিয়ে নৌকার শেষ প্রচার করে আসছিলাম। এর ভিতরেই তার বাড়ির সামনে বসে ১০ থেকে ১২ জন পিছন থেকে অতর্কিত হামলা চালিয়ে মাইক ভাঙচুর করেন ও আমাকে মারধর করেন। এতে আমার ছোট একটি ফোন ভেঙে যায় ও বড় স্মার্টফোনটি তারা ছিনিয়ে নিয়ে চলে যায়।

আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রার্থীর পুত্রবধূ মনিকা নাজনীন বলেন এই মানসুরুল আলম অতীতের নির্বাচনগুলোতে বিএনপি’র মনোনীত প্রার্থী ছিলেন। পরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে এই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। তবে তিনি বিএনপি-জামাতের সন্ত্রাসের রাজনীতি ছাড়তে পারেননি। সাধারণ ভোটারা শান্তিপূর্ণ নির্বাচন চায়। তিনি আরও বলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী স্থানীয় সাবেক চেয়ারম্যানের ছেলে হত্যার প্রধান আসামী। এ ছাড়াও এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত।

এবিষয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী মানসুরুল আলম বলেন,এগুলো নৌকার প্রার্থীর বানানো কথা। এধরনের কোনো ঘটনা আমাদের সাথে ঘটেনি। তারা বানিয়ে বলেন এগুলো।

এবিষয়ে তালতলীর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান মিয়া বলেন,ঘটনা শুনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। আমি থানার বাহিরে আছি অভিযোগ দিতে বলছি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়াহবে।#

আপনার ফেইসবুকে শেয়ার করুন।

এরকম আরো খবর
© এই সাইটের কোন নিউজ/ অডিও/ভিডিও কপি করা দন্ডনিয় অপরাধ।
Created By Hafijur Rahman akas