স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও যুবলীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলন মানেই নতুন মুখ।

48

আমাদের কুয়াকাটা ডেস্ক।। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নতুন সম্মেলন মানেই নতুন মুখ। আর আওয়ামী লীগের সম্মেলনের ব্যাপারে কোনো আপস নেই। যথাসময়েই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

আগামী ১৬ ও ২৩ নভেম্বর যথাক্রমে স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও যুবলীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলনকে সামনে রেখে এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

শনিবার (১৯ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টায় নারায়ণগঞ্জের মেঘনা ঘাট এলাকায় সড়কের উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনে যান ওবায়দুল কাদের।

সেখানে যুবলীগ ও সেচ্ছাসেবক লীগের আসন্ন সম্মেলনসহ নানা বিষয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন সেতুমন্ত্রী।

রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন চলছে, এবারের সম্মেলনে পদ হারাতে পারেন যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ এবং স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা আবু কাউসার ও সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ।

নেতৃত্বে পরিবর্তন আসবে কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে সেদিকেই ইঙ্গিত দিলেন ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, নতুন সম্মেলন মানেই নতুন মুখ। প্রবীণ-তরুণ-অভিজ্ঞদের সমন্বয় ঘটিয়ে আমরা দলকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাব। এখানে পরিবর্তন হবে, নতুন মুখ আসবে।

সম্মেলন করা অত্যাবশ্যকীয় জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, সহযোগী সংগঠনগুলোর সম্মেলনের বয়স ৮-৯ বছর হয়ে গেছে। তাই সম্মেলন করা এখন বেশ জরুরি হয়ে পড়েছে। সম্মেলন হবে। নির্ধারিত দিনেই। দলকে ঢেলে সাজানো হবে সেখানে।

এ সময় সম্প্রতি বুয়েটে ঘটে যাওয়া আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে তাকে প্রশ্ন করা হয়।

শিবির সন্দেহে আবরার ফাহাদকে ছাত্রলীগের কিছু নেতাকর্মী পিটিয়ে হত্যা করেছে সাংবাদিকদের এমন কথার জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আবরার হত্যাকারীরা ছাত্রলীগ পরিচয়ের হলেও প্রধানমন্ত্রী কাউকে ছাড় দেননি। হত্যাকাণ্ডের পরপরই অভিযুক্তরা গ্রেফতার হয়েছেন। বুয়েট শিক্ষার্থীদের সব দাবি মেনে নেয়া হয়েছে।

তিনি যোগ করেন, শুদ্ধি অভিযানে যেমন যুবলীগ, ছাত্রলীগ নেতাদের ছাড় দেয়া হয়নি। ঠিক তেমনই এ হত্যাকাণ্ডে জড়িতদেরও ছাড় দেয়া হয়নি, হবেও না। অপরাধীরা যেই দলেরই হোক শেখ হাসিনা সরকারের কাছে কোনো ছাড় নেই বলে জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here