মহিপুরে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগে সাংবাদিক সম্মেলন

133

মহিপুর প্রতিনিধি ঃ

মহিপুরে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন ভুক্তভোগীর বড় ভাই আইউব আলী। ১০ মে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মহিপুর প্রেসক্লাবের হলরুমে সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে আইউব আলী লিখিত বক্তব্যে বলেন, মহিপুর থানার ৭নং লতাচাপলী ইউনিয়নের নয়ামিশ্রী পাড়া গ্রামের মৃতঃ হানিফ আকনের ৩তিন পুত্র মোঃ সেলিম আকন, রহমান ও রফিক দাতা হয়ে গৃহীতা মোঃ তৈয়ব আকন, পিতাঃ সেকান্দার আলী আকন’র কাছে ০-৩৩ শতাংশ জমি বিক্রি করে। কিন্তু ইউনিয়নের সাব রেজিঃ বন্ধ থাকার কারনে গত ১১/০৪/২০১৯ইং তারিখ ৩৩৩ নং স্ট্যাম্পের মাধ্যমে জে এল ৩৪ নং লতাচাপলী মৌজার এস এ ৪৪০ নং খতিয়ানের দাগ নং ৮৩৫৩, ৮৩৫৪, ৮৩৫৫, ৮৩৫৬সহ ১০টি দাগের অংশ হইতে ০-৩৩ শতাংশ জমি ৩,০০,০০০/= তিন লক্ষ টাকা ধার্য করিয়া অত্র স্ট্যাম্পচুক্তির মাধ্যমে সম্পূর্ন টাকা পরিশোধ করা কয়।
তৎকালীন ৮ শতাংশ জমির দখল বুঝিয়ে দিলে সেখানে বসত ঘর র্নিমান করা হয়। দীর্ঘ ৫ বছর অতিবাহিত হওয়ার পর চুক্তি অনুপাতে বাকী জমি দখলে নেয়া হলে বিবাদীরা নারী নির্যাতনসহ মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করছে। উক্ত স্ট্যাম্প চুক্তি পত্র মিথ্যা বলে কলাপাড়া উপজেলা বিজ্ঞ সিনিয়ার জুডিশিয়াল মেজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা দায়ের করে। মামলা নং সি আর -৩০২/১৯।
লিখিত বক্তব্যে আরো বলেন, বিবাদী গনের স্বাক্ষর পরীক্ষা করার চ্যালেঞ্জ ছুরে দেন। ওই জমি বিক্রেতারা চড়ম অপরাধী তাদের স্বাক্ষর জাচাই করলেই আসল রুপ বেড়িয়ে আসবে। বিষয়টি সংশ্লীষ্ট কর্তৃপক্ষের নজরে আনতে প্রিন্ট মিডিয়া, অনলাই ও ইলেক্ট্রোনিক্স মিডিয়ায় প্রকাশ করার জন্য জোর অনুরোধ করেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, মহিপুর প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোঃ হাবিবুল্লাহ খান রাব্বী, সভাপতি মোঃ মনিরুল ইসলাম, সদস্য সাইফুল ইসলাম রয়েল, মোঃ শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।
এব্যাপারে অভিযুক্ত সেলিম আকনের সাথে মুঠো ফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, স্ট্যাম্পের চুক্তিপত্র জালজালিয়াতির মাধ্যমে করছে। এ জন্য আদালতে মামলা আছে।
মহিপুর অফিসার ইনচার্জ সাইদুল ইসলাম বলেন, মামলার তদন্ত তাঁর কাছে আসছে। তিনি বিষয়টি নিখুত ভাবে খুতিয়ে দেখবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here